ভাষা শহীদ জব্বারের বাড়িতে জনতার ঢল

ভাষা শহীদ জব্বারের বাড়িতে জনতার ঢল

মাহমুদ হাসান সজিব,গফরগ্ওঁ- ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:
মহান একুশে ফেব্রুয়ারী, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে জনতার ঢল নেমেছে ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের রাওনা ইউনিয়নের (পাচুঁয়) জব্বার নগর গ্রামে অবস্থিত ভাষা শহীদ আঃ জব্বারের বাড়িতে।
সোমবার রাত একুশের প্রথম প্রহরেই ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের বাড়ি থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার রুপ নেয় জনসমুদ্রে। রাত ১২টা ১ মিনিটে স্থানীয় এমপি ফাহমি গোলন্দাজ বাবেলের পক্ষ থেকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন বাদল, পৌরসভার মেয়র ইকবাল হোসেন সুমন, স্থানীয় এমপির একান্ত সচিব ও উপজেলা আ’লীগ নেতা মাসুদ হোসেন সোহেলসহ আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্ধ শহীদ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পনের মধ্য দিয়ে দিবসটির শুভ সূচনা করেন।
পরে পর্যায়ক্রমে গফরগাঁও উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, পৌরসভা, উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন, মুক্তিযুদ্ধা কমান্ড, গফরগাঁও থানা, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ নানা পেশাজিবী হাজারও মানুষ শহীদ বেদীতে পু®পার্ঘ অর্পণ করে।
পরে মঙ্গলবার সকাল ১০টার টার দিকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও ভাষা শহীদ আঃ জব্বার শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিদ্ধার্থ শঙ্কর কন্ডুর সভাপতিত্বে আলোচনা ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন স্থানীয় ঈর্ষণীয় জনপ্রিয় এমপি ফাহমি গোলন্দাজ বাবেল।


বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন বাদল, পৌর মেয়র ইকবাল হোসেন সুমন, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনি, রেশমা আক্তার,উপজেলা সহকারি কমিশনার ভুমি একে এম শামছুল আরেফীন, পৌরসভা আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুল হালিম মানিক, স্থানীয় এমপির একান্ত সচিব ও উপজেলা আ’লীগ নেতা মাসুদ হোসেন সোহেল, ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম, জেলা পরিষদ মেম্বার মোহিবুর, অধ্যাপক মজিবুর রহমান, দিলরুবা আক্তার কাজল, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা আতাউর রহমান, আবু কাউছার, স্বেচ্ছা সেবকলীগ আহবায়ক আরঙ্গ হেলাল, জেলা ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদ হাসান সজিব,উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান সানিল, পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি সিয়াম প্রমুখ ।
উল্লেক্ষ্য ভাষা আন্দোলনের ৬৫ বছর পুর্ণ হল এ বছর । অতিতের সকল ইতিহাস ভেঙ্গে দিয়ে শহীদ আঃ জব্বার গ্রস্থাগার স্মৃতি জাদুঘর ও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারকে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। গ্রামের আকা বাকা সড়কগুলোর দু’পাশে নির্মাণ করা হয়েছে চোখ ধাধানো তোরণ, লাগানো হয়েছে ব্যানার ফেস্টুন, প্যানা সাইনবোডসহ নানা রঙের বিদ্যুতিক বাতি। নিরাপত্তা নিশ্চয়তা, ডিসিপ্লেইন, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা, পরিপাটি, সাজানো গোছানো মনোরম পরিবেশে উপভোগ করেছেন সাস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মন দিয়ে পড়েছেন গ্রন্থাগারে সংরক্ষিত অনেক অজানা বই, জেনেছেন অনেক ইইতহাস, মনোমুগ্ধ হয়েছেন শ্রদ্ধা জানাতে আসা হাজার হাজার মানুষ। এ সবের সফল আয়োজক কর্মগুনে আলো ছড়ানো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিদ্ধার্থ শঙ্কর কন্ডুর ভুয়েসী প্রসংসা করতে ভুলেননি শ্রদ্ধা জানাতে আসা ভাষা প্রেমীরা।