বিকাশের এজেন্ট খুন,আহত-১

বিকাশের এজেন্ট খুন,আহত-১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 
ঢাকায় দিনদুপুরে দুটি পৃথক ঘটনায় বিকাশের দুই এজেন্ট হামলার শিকার হয়েছেন। এরা হলেন আল আমিন (২২) ও মাহবুবুর রহমান (২৯)। এঁদের মধ্যে উত্তরার দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে মারা গেছেন আল আমিন। ডেমরা এলাকায় আরেকটি ঘটনায় মাহবুবুর রহমানকে কুপিয়ে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী হোসেন বলেন, আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উত্তরার ৫ নম্বর সেক্টরের–১এ নম্বর সড়কে এজেন্টদের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহ করে হেঁটে আসছিলেন আল আমিন। এ সময় কয়েকজন দুর্বৃত্ত এসে তাঁর ডান ঊরুতে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। আহত অবস্থায় আধা ঘণ্টা রাস্তায় পড়ে ছিলেন আল আমিন। শুরুতে আশপাশের লোকজন কেউ এগিয়ে আসেনি, পরে পথচারীরা আলামিনকে উদ্ধার করে পাশের একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে হাসপাতালে যায়। হাসপাতালের চিকিৎসক বলছেন, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে আল আমিনের মারা যান। তাঁর বাসা দক্ষিণখানে।আল আমিনের টাকা ছিনতাই হয়েছে কি না, জানতে চাইলে ওসি বলেন, ‘এই মুহূর্তে কিছু বলতে পারছি না। তবে ওই যুবক বিকাশের টাকা সংগ্রহ করে জমা দেন। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি হয়তো টাকা সংগ্রহ করে ফিরছিলেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে।’এদিকে ডেমরার সারুলিয়ায় মির্জা এনায়েত হোসেনের মালিকানাধীন একটি দোকানে বিকাশের এজেন্ট মাহবুবুর রহমান। তাঁর বাড়ি ডেমরার কামারভোগ এলাকায়।প্রতিনিধির কাছ থেকে বিকাশের টাকা সংগ্রহ করে ফেরার সময় আজ দুপুরে ডেমরা রানীমহল সিনেমা হল এলাকার গলাকাটা ব্রিজের ঢালে মোটরসাইকেল করে আসা তিন যুবক তাঁকে ঘিরে ফেলে। এদের মধ্যে একজন মুখোশধারী ছিল। এ সময় দুর্বৃত্তরা মাহবুবুর রহমানের হাতে থাকা ব্যাগটি ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। বাধা দিলে মাহবুবকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে যায় তারা। পরে মাহবুবকে বেলা তিনটায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মাহবুবুর প্রতিদিন প্রায় দুই লাখ টাকা নিয়ে আসেন। তবে আজ তাঁর ব্যাগে টাকার পরিমাণ জানা যায়নি।