ভ্যাট দিবেনা রবি

ভ্যাট দিবেনা রবি

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ 

ফোন অপারেটর রবি আজিয়াটার কাছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) দাবি করা ১৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকা মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) অযৌক্তিক বলছে অপারেটরটি। তাই এই ভ্যাট দিতে অস্বীকৃতি প্রকাশ করেছে রবি।জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) যে পরিপত্রের মাধ্যমে এই ভ্যাট চাওয়া হচ্ছে, সেই পরিপত্র জারি হওয়ার আগেই সেবা দুটির মূল্য পরিশোধ করা হয়েছে। এ ছাড়া বিটিআরসির ভ্যাট নিবন্ধন না থাকায় সংস্থাটির বকেয়া দাবির যৌক্তিকতা নেই বলেও জানিয়েছে রবি।চতুর্থ প্রজন্মের (ফোর-জি) টেলিযোগাযোগ সেবার লাইসেন্স ও তরঙ্গের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার মূল্যের ওপর মোট ১৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকা বকেয়া ভ্যাট পরিশোধে ১৮ এপ্রিল রবিকে চিঠি দেয় বিটিআরসি।

এই বকেয়া পরিশোধে রবিকে সাত দিনের সময় বেঁধে দেওয়া হয়। এই সময়সীমা আজ বুধবার শেষ হওয়ার কথা। তার আগেই গতকাল মঙ্গলবার এ বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে চিঠি দিয়ে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরে রবি।ভ্যাট না দেওয়ার যুক্তি হিসেবে রবির চিঠিতে বলা হয়েছে, তরঙ্গ ব্যবহারে প্রযুক্তি নিরেপক্ষতা সুবিধার জন্য নির্দেশনা অনুযায়ী গত ৫ ফেব্রুয়ারি বিটিআরসিকে নির্ধারিত অর্থ পরিশোধ করা হয়েছে। আর প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট দেওয়ার বিষয়ে এনবিআরের বিশেষ পরিপত্র জারি করা হয় ১৯ ফেব্রুয়ারি। আইন অনুযায়ী ভূতাপেক্ষ সময়ে জারি করা পরিপত্রের ওপর ভ্যাট দেওয়ার সুযোগ নেই। তাই প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার জন্য ১৮ কোটি ৪৩ লাখ টাকার ভ্যাট রবির ওপর প্রযোজ্য হতে পারে না।বিটিআরসির ভ্যাট নিবন্ধন না থাকার বিষয়ে রবির চিঠিতে বলা হয়েছে, যেকোনো সেবামূল্যের ওপর ভ্যাট পরিশোধ করা হলে সেটির চালান পাওয়া ভ্যাট পরিশোধকারীর অধিকার। কিন্তু বিটিআরসির এ ধরনের কোনো নিবন্ধন নেই।