বৃহস্প‌তিবা‌রের ম‌ধ্যে প্রজ্ঞাপন জা‌রি না কর‌লে রোববার থে‌কে ক‌ঠোর আ‌ন্দোলন

বৃহস্প‌তিবা‌রের ম‌ধ্যে প্রজ্ঞাপন জা‌রি না কর‌লে রোববার থে‌কে ক‌ঠোর আ‌ন্দোলন

নিজস্ব প্র‌তি‌বেদকঃ 
মঙ্গলবা‌রের ঘো‌ষিত কর্মসূ‌চি অনুযায়ী আজ সারা দে‌শে মানববন্ধন কর্মসূ‌চি পালন ক‌রেছে বাংলা‌দেশ সাধারণ ছাত্র অ‌ধিকার সংরক্ষণ প‌রিষদ। সকাল ১১টায় এক‌যো‌গে দে‌শের বি‌ভিন্ন ক‌লেজ ও বিশ্ব‌বিদ্যাল শা‌ন্তিপূর্ণভা‌বে সরকা‌রি চাক‌রি‌তে কোটা বা‌তি‌লের প্রজ্ঞাপন জা‌রির দা‌বি‌তে এ মানববন্ধন কর্মসূ‌চি পালন ক‌রেছে। ত‌বে রংপুর, নর‌সি‌ন্দী ও গাজীপু‌রে মানববন্ধন কর্মসূ‌চি‌তে পুলি‌শের বাধা দেয়ার অ‌ভি‌যোগ পাওয়া গে‌ছে ।সাধারণ ছাত্র অ‌ধিকার প‌রিষ‌দের কেন্দ্রীয় ক‌মি‌টি এ আ‌ন্দোলন কর্মসূ‌চি পালন ক‌রে‌ছে ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের টিএস‌সি সংলগ্ন রাজু ভাস্ক‌র্যের সাম‌নে।এসময় ‌কেন্দ্রীয় ক‌মি‌টির যুগ্ম আহব্বায়ক রা‌শেদ খান ব‌লেন, আমরা শা‌ন্তিপুর্ণভা‌বে অ‌হিংস আ‌ন্দোলন চালা‌চ্ছি। আগা‌মিতে যেসব আ‌ন্দোলন করা হ‌বে তাও হ‌বে অ‌হিংস। আমরা বঙ্গবন্ধুর অ‌হিংস আ‌ন্দোল‌নে বিশ্বা‌সি। প্রধানমন্ত্রীর সংস‌দে কোটা বা‌তি‌লের ঘোষণা দেয়ার ২৮ পর হ‌য়ে গে‌ছে অথচ প্রজ্ঞাপন জা‌রি করা হয় নাই। আমা‌দের সা‌থে নাটক করা হ‌চ্ছে। বৃহস্প‌তিবা‌রের ম‌ধ্যে কোটা বা‌তি‌লের প্রজ্ঞাপন জা‌রি করা না হ‌লে আগা‌মি রোববার থে‌কে দে‌শের সকল ক‌লেজ বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ে ক‌ঠোর আ‌ন্দোলন করা হ‌বে।উল্লেখ্য, গত ১৭ ফেব্রুয়া‌রি থে‌কে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের প্রায় সব পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন করে আস‌ছে। ত‌বে ৮ এ‌প্রি‌ল রা‌তে শাহবা‌গে পু‌লি‌শের সা‌থে কোটা সংস্কার আ‌ন্দোলনকারী‌দের সংঘ‌র্ষের পর থে‌কে আ‌ন্দোলন আ‌রো ক‌ঠোর হয়। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠকের পর ৭ মে পর্যন্ত তাদের কর্মসূচি স্থগিতের ঘোষণা দেন। তবে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর এক বক্তব্যকে কেন্দ্র করে ১০ এপ্রিল থেকে ফের আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। তারা কোটা সংস্কারের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে সিদ্ধান্ত আসার দাবি জানান। পরে ১১ এপ্রিল জাতীয় সংসদের অধিবেশনে কোটাপদ্ধতি বাতিল ঘোষণা করে সব চাকরিতে শতভাগ মেধার ভিত্তিতে নিয়োগের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পর দিন শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে আনন্দ মিছিল বের করেন। এসময় প্রধানম‌ন্ত্রি‌কে মাদার অব এডু‌কেশন উপা‌ধি‌তে ভূ‌ষিত ক‌রে সাধারণ ছাত্র অ‌ধিকার প‌রিষদ।২৬ এপ্রিল সংবাদ সম্মেলন করে কোটা বাতিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশের দাবি জানান আন্দোলনকারী। না হলে ফের আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন তারা। ২৭ এপ্রিল জাহাঙ্গীর কবির নানকের সঙ্গে বৈঠকে কর‌লে নানক ব‌লেন প্রধানমন্ত্রী দে‌শে আসার পর প্রজ্ঞাপন জা‌রি হ‌বে।
গত ২মে সরকারি বাসভবন গণভবনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে কোটা বাতিলের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোনো ধরনের ক্ষোভ থেকে সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। ছাত্ররা কোটাব্যবস্থা বাতিল চেয়েছে, বাতিল করে দেয়া হয়েছে।তবে সোমবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, সরকারি চাকরিতে কোটাপদ্ধতি বাতিল বা সংস্কারের বিষয়ে কোনো অগ্রগতি নেই।তার এ বক্তব্যের পর মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতারা।