রাজাপুরে আলহাজ মুনসুর আলী দাখিল মাদ্রাসার অবকাঠামোর উন্নয়ন দরকার

রাজাপুরে আলহাজ মুনসুর আলী দাখিল মাদ্রাসার অবকাঠামোর উন্নয়ন দরকার

কামরুল হাসান মুরাদ:

ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের ছোটকৈবর্তখালী গ্রামের ১৯৭৮ সালে স্থাপিত আলহাজ্ব মুনসুর আলী দাখিল মাদ্রাসার অবকাঠামোর উন্নয়ন দরকার। সরজমিনে জানা যায়, মাদ্রসার ইংরেজী শিক্ষক পদ খালী ,বিগত এক দশকে কোন উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি,বর্তমানে ফ্লোর ফাটল অস্থায় ঝুঁিকপূর্ন টিন সেটে ক্লাস চলছে,নবম শ্রেনীর ছাত্র আরিফ বিল্লাহ জানায়,আমাদের মাদ্রাসা ক্লাসের পর্যাপ্তা পরিমানে চেয়ার -টেবিল,বেঞ্চ না থাকার কারনে লেখা-পড়ার বিঘœ হচ্ছে। মাদ্রাসার ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী নাজমা আক্তার জানায়,আমাদের মাদ্রাসার এরিয়া ভাউন্ডারি ও চলাচলের রাস্তার না থাকার কারনে আমাদের অনেক সমস্যা হয়ে থাকে। আমাদের মেয়েদের ইভটিজিং থেকে বাঁচতে নিরাপত্তার জন্য পদক্ষেপ নেওয়া দরকার। উক্ত মাদ্রাসার ১০ম শ্রেনীর ছাত্র মোঃআমির হোসেন জানান,আমাদের মাঠের সংস্কারের অভাবে সরকারী যে কোন অনুষ্ঠান করতে ব্যাহত হচ্ছে।মাদ্রসার পিছনে একটি খাল রয়েছে সেটির জন্য পাইলিং দেওয়া দরকার। মাদ্রাসায় আসার পথের রাস্তাটি পাকা করা প্রয়োজন। এব্যাপারে মাদ্রসার সুপারের কাছে জানতে চাইলে সুপার মোঃ নুরুল ইসলাম বলেন, মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠা শুরু থেকে আমি প্রধান সুপারের দায়িত্বে আছি কিন্তু সরকারীভাবে তেমন কোন বরাদ্ধ দেখিনাই। মাদ্রসার প্রতিষ্ঠাতা কাওছার মাস্টার নীজ তহবিল দিয়ে আধাপাকা মাদ্্রাসায় পরিনত করেন। শিক্ষক মন্ডলীর মধ্যে আমি বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ সভা করে থাকি। ছাত্রা-ছাত্রী মিলে ৩৬৬ জন থাকলেও বর্তমানে উপবৃত্তি পাইনা। বিগত আমলে আমাদের মাদ্রসার পাশের হার ভাল ছিল। বর্তমানে শিক্ষার হার ভাল আছে। আমাদের মাদ্রসার অবস্থান বলতে কাছেই কোন স্কুল নাই। একমাত্র গ্রমের মধ্যে অবস্থিত আলহাজ মুনসুর আলী দাখিল মাদ্রাসার অবকাঠামোর উন্নয়ন দরকার। মাদ্রসার ইংরেজী শিক্ষক পদ খালী থাকায় শিক্ষার মান ব্যাহত হচ্ছে। শিক্ষার ক্ষেত্রে বৃত্তি পেত আমাদের ছাত্র-ছাত্রীরা তাহাও বর্তমানে বন্ধ রয়েছে।উপবৃত্তি চালু করা দরকার।