প্রকাশিত হয়েছে ইমরান মাহফুজের লালব্রিজ গণহত্যা

প্রকাশিত হয়েছে ইমরান মাহফুজের লালব্রিজ গণহত্যা

কবি ও  কালের ধ্বনি সম্পাদক ইমরান মাহফুজের মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা গ্রন্থ ‘লালব্রিজ গণহত্যা’
প্রকাশিত হয়েছে। বইটিতে আসছে একাত্তরের ঘাতকদের এক জল্লাদখানা ও বধ্যভূমি আবিষ্কারের চাঞ্চল্যকর সংবাদ তথ্য। যা ৪৫ বছরে ইতিহাসের পাতায় ঠাই হয়নি। বলা যায় মুক্তিযুদ্ধের এক অজানা অধ্যায়। লালব্রিজ চুয়াডাঙ্গার জেলার আলমডাঙ্গা থানার রেলব্রিজের সংলগ্ন একটি জায়গা।
যুদ্ধকালীন সময় পাক ঘাতকরা ট্রেন থামিয়ে স্বাধীনতাকামী প্রায় ২ হাজার নারী-পুরুষকে হত্যা করে রেলব্রিজের পাশে ওয়াপদা ভবনের বাউন্ডারি মধ্যে ও পার্শ্ববর্তী দু’টি বধ্যভূমিতে পুঁতে রাখে।  গণহত্যার প্রত্যক্ষদর্শী  আবুল হোসেনের ভাষ্যমতে তাঁর জমিতেই প্রায় একহাজার নারী-পুরুষকে খানসেনারা হত্যা করে পুঁতে রেখেছে। ’৭১ এর জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে রেলব্রিজের কাছের ওই বধ্যভূমি খনন করে ৪শ’ মানুষের মাথার খুলি ও হাড়গোড় তুলে ছবি তুলে রাখা হয়েছিল। তবে ওখানে আরও প্রায় এক দেড় হাজার দেহাবশেষ রয়েছে। বর্তমানে গ্রন্থটিতে নিমর্ম হত্যাকা-ের সকল বিষয় উঠে আসছে। এটি প্রকাশ করছে ১৯৭১: গণহত্যা ও নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্ট। প্রচ্ছদ করেছে তারিক সুজাত। সংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রকল্প হিসেবে আর্কাইভ ও জাদুঘরের সহযোগী প্রতিষ্ঠানের গ্রন্থমালা সম্পাদক মুনতাসির মামুন। সহযোগী মামুন সিদ্দিকী।
ইমরান মাহফুজ সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ ও সাংবাদিক আবুল মনসুর আহমদ, কবি ও গবেষক আবদুল কাদিরকে নিয়ে কাজ করেছেন। এখন করছেন কবি জসীম উদ ্দীনকে নিয়ে। তার প্রথম কবিতার বই দীর্ঘস্থায়ী শোকসভা’ (ঐতিহ্য), আবুল মনসুর আহমদ স্মারকগ্রন্থ (প্রথমা), জীবনশিল্পী আবুল মনসুর আহমদ( স্টার বুকস) ‘মুক্তিযোদ্ধ: অজানা অধ্যায়’ ( জাগৃতি),‘কষ্টের ফেরিওয়ালা: হেলাল হাফিজ’ (বিভাস), The Equation of life (Kaler Dhoni) সহ  মোট ৭টি বই প্রকশিত হয়েছে।