সৈয়দপুরে শিশু ধর্ষক ও ভারতীয় নেশাসহ আটক-২

সৈয়দপুরে শিশু ধর্ষক ও ভারতীয় নেশাসহ আটক-২

এম আর মহসিন,সৈয়দপুর সংবাদদাতাঃ সৈয়দপুরে শিশু ধর্ষন ও ভারতীয় নেশা জাতীয় ওষুধ আমদানি আলাদা দুটি অভিযোগে ফিরোজ হোসেন (২৫) ও জাকিরুল(২০) নামে দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ। রোববার ২৪ সেপ্টেম্বর এ দুই যুবককে আটকের পর আদালতের মাধ্যেমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃত জাকিরুল দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার বাঘডোবা তাতিপাড়া মহল্লার গোলজার রহমানের ছেলে এবং ফিরোজ উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের কাঙ্গালপাড়ার মৃতঃ আকবর আলীর পুত্র বলে জানা গেছে।

সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার পরির্দশক এ.কে.এম লুৎফর রহমন জানান, শনিবার রাত নটার দিকে সৈয়দপুর রেলওয়ে গোয়েন্দা পুলিশের পরির্দশক কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশ সদস্যরা রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ছেড়ে আসা চিলাহাটীগামী আন্তঃনগর বরেন্দ্র এক্সপ্রেস চলন্ত ট্রেনে অভিযান চালায়। এসময় ট্রেনটি সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশনের ঢোকার আগে সৈয়দপুর-পার্বতীপুরের রেলপথের বানিয়াপাড়া নামক স্থানে ট্রেনের ‘খ’ নম্বর বগির ভেতরে কালো হাত ব্যাগ সাথে নিয়ে থাকা যুবক জাকিরুলকে সন্দেহ মূল্যকভাবে আটক করে তল্লাশি করা হলে তার ব্যাগ থেকে নেশা জাতীয় ভারতীয় এক হাজার একশ পনের বুপ্রিনোরফিন (ইঁঢ়ৎবহড়ৎঢ়যরহব) ইনজেকশন জব্দ করে রেলওয়ে গোয়েন্দা পুলিশ সদস্যরা। উদ্ধার হওয়া এক হাজার একশ পনের টি ইনজেকশনের ভায়ালের মূল্য ৩ লাখ ৩৪ হাজার টাকা বলে জানা গেছে।
পরে ওই রাতেই তাঁর বিরুদ্ধে রেলওয়ে গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আব্দুল মোমিন বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট আইনে সৈয়দপুর রেলওয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। রোববার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে আদালতের মাধ্যমে জাকিরুলকে কারাগারে পাঠানো হয় বলে সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার অফিসার্স ইনচার্জ লুৎফর রহমান নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে, একই দিনে উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউপির মোহাম্মদীয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেনীর এক শিশুকে খাবার প্রলোভন দিয়ে একটি ধান ক্ষেত হতে ধর্ষনের অভিযোগে ফিরোজ নামের যুবককে আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাাকাবাসি। পরিবারের অভিযোগ পাষন্ড ফিরোজের হাতে শিশুটি ধর্ষনের শিকার হয়েছে।
এলাকাবাসি জানায়, শিশুটিকে ফুসলিয়ে ধান ক্ষেতে নিয়ে যায় ওই ধর্ষক। এ সময় শিশুটি চিৎকার করলে তাকে উদ্ধার করে এবং ধর্ষককে আটক করা হয়। পরে সৈয়দপুর থানা পুলিশকে জানালে তারা ঘটনাস্থল থেকে ওই যুবককে গ্রেফতার করে।
এ ব্যাপারে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচাজ (ওসি) আমিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে।