ডিমলায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্দ

ডিমলায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্দ

মোঃ জাহাঙ্গীর আরম রেজা, ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ-
নীলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলায় গত শুক্রবার গভীর রাতে ৫ম শ্রেণীর এক ছাত্রীর বাল্যবিয়ে বন্দ করে দিলেন ইউএনও। রান্না-বান্না হয়েছে, সব কাজ সম্পন্ন আসবে শুধু বরযাত্রী এমন সময় বিয়ের বাড়ীতে পুলিশ নিয়ে হাজির হলেন,ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোছা. নাজমুন নাহার। গত শুক্রবার (৬-অক্টোবর) গভীর রাত ১টার দিকে ঘটনাটি ঘটে খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের আটঘরিয়া পাড়া গ্রামের ময়দানপাড়ায়।

ছাত্রীটি আটঘটিয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শেণীর ছাত্রী ও একই এলাকার মোঃ আইনুল হকের কন্না। পুলিশ ও ইউএনও-এর উপাস্থতি টের পেয়ে বরযাত্রী উক্ত বিয়ের বাড়ীতে আসেনি। ছাত্রীটির পিতা-মাতা স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতিতে অঙ্গীকার নামা লিখে দেয় মেয়ের বাল্যবিবাহ দিবে না।

ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোছা. নাজমুন নাহার প্রতিবেদককে বলেন, গোপন সংবাদের ভিক্তিতে রাতে গিয়ে বাল্যবিবাহ বন্দ করা হয়েছে। ছাত্রটির পিতা বাল্যবিবাহ দিবে না মর্মে সকলের উপস্থিতিতে অঙ্গীকার নামা লিখে দেন। তিনি আরো বলেন, ডিমলা উপজেলা বাল্যবিবাহ মুক্ত করতে প্রশাসন সর্বাত্মক চেষ্টা করবে। এ সময় ডিমলা থানার এসআই মোঃ মাসুদ মিয়া, এসআই মোঃ আতিকুর রহমান আতিক, খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ হামিদুল ইসলামসহ স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন।