পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র পরিহার করে আলোচনার টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছেনঃ হানিফ

পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র পরিহার করে আলোচনার টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছেনঃ হানিফ

মোঃ কবির হোসেন, রাঙ্গামাটি প্রতিনিধিঃ
পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র ব্যবহার করে যারা ভুল পথে এগুচ্ছে তাদেরকে অস্ত্রের পথ পরিহার করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে আলোচনার টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল হানিফ এমপি।

হানিফ জানান, সরকার কখনোই সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদকে সহ্য করবে না। সন্ত্রাস জঙ্গীবাদের মুল উৎপাটন করতে সরকার বদ্ধ পরিকর।

সোমবার (১৫জানুয়ারি) সকালে রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দীপংকর তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামিম, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহামুদ চৌধুরী এমপি, ফিরোজা বেগম চিনু এমপি, কেন্দ্রীয় আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, রাঙামাটি জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমাসহ দলের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

কেন্দ্রীয় আ’লীগের এ নেতা রাঙামাটির আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিচলিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেন, নির্ভয়ে, নিশ্চিন্তে পাহাড়ের আনাচে কানাচে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যেতে হবে। কোথাও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপর হামলা করা হলে হামলাকারী কেউ রেহাই পাবে না। তাদের কঠোর ভাবে দমন করা হবে।

হানিফ আরো জানান, অন্যায় করে কেউ পার পাবে না। অস্ত্র কখনো সমস্যার সমাধান দিতে পারে না। যে কোন সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে তার সমাধানের উপায় বের করতে হবে। যারা অস্ত্র নিয়ে বিপথগামী হয়েছে তাদেরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, অন্যথায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।

বর্ধিত সভায় রাঙামাটি ১০ উপজেলার আওয়ামী লীগের সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

রাঙামাটিতে সাম্প্রতিক সময়ে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উপর হত্যা, অপহরণ, হামলার ঘটনাসহ জোরপূর্বক দল ত্যাগে নেতাকর্মীদের বাধ্য করার প্রেক্ষাপটে রাঙামাটিতে আওয়ামী লীগের এই বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Attachments area