ঝালকাঠিতে অশ্লীলতা বর্জন করেই ‘কন্যা উৎসব’ অনুষ্ঠিত হবে

ঝালকাঠিতে অশ্লীলতা বর্জন করেই ‘কন্যা উৎসব’ অনুষ্ঠিত হবে

কামরুল হাসান মুরাদ, ঝালকাঠি: ঝালকাঠি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এড. আলহাজ্ব খান সাইফুল্লাহ পনির বলেন, ঝালকাঠির উন্নয়নের রুপকার জাতীয় নেতা শিল্পমন্ত্রী আলহাজ্ব আমির হোসেন আমুর দক্ষিন এশিয়ার প্রখ্যাত ইসলামী দার্শনিক, হযরত আযিযুর রহমান নেছারাবাদী কায়েদ ছাহেব হুজুর রা. এর আদর্শে উজ্জীবিত। শিল্পমন্ত্রী কঠোর নির্দেশে সর্বরকম বেহায়াপনা ও অশ্লীলতা বর্জন করেই ঝালকাঠিতে ‘কন্যা উৎসব’ নামে নারীদের পুনঃমিলনী অনুষ্ঠান করা হবে। কায়েদ ছাহেব হুজুর দল-মত নির্বিশেষে ঝালকাঠিকে অশ্লীলতা-বেহায়াপনা মুক্ত এলাকা ঘোষনা করায় স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ এই জেলায় কখনো মেলার নামে যাত্রা-হাউজি, মদ-জুয়া সহ কোন অনৈসলামিক কর্মকান্ড হতে দেয়নি। তাই কোন ধরনের গুজব বা উস্কানীতে কান না দিয়ে আদর্শ সমাজ বাস্তবায়ন কমিটির সিনিয়র ৫ সদস্যের প্রতিনিধি টিম গঠন করে অনুষ্ঠান পর্যবেক্ষন ও ‘কন্যা উৎসব’ নামে নারীদের পুনঃমিলনের এই অনুষ্ঠান আয়োজকদের অশ্লীলতা-বেহায়াপনা মুক্ত কর্মসূচী পালনের আহবান জানান।
‘কন্যা উৎসব’ নিয়ে নানা ধরনের অপপ্রচার ও গুঞ্জনের সূত্র ধরে ঝালকাঠি আদর্শ সমাজ বাস্তবায়ন কমিটির পক্ষ থেকে অশ্লীলতা-বেহায়াপনা মুক্ত রাখতে ‘কন্যা উৎসব’ বন্ধের বিষয়ে পরামর্শ করার লক্ষে কামারপট্টি রোডস্থ ‘খানকায়ে মুছলিহীন’ কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভা আহবান করেন। সভায় কায়েদ ছাহেব হুজুরের সুযোগ্য সন্তান মাও: খলিলুর রহমান নেছারাবাদী মোবাইল কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন। তিনি তার বক্তব্য বলেন, হযরত কায়েদ ছাহেব হুজুর রহ. এর নিরলস প্রচেষ্টায় সকল শান্তিকামী জনতার সহযোগিতায় ঝালকাঠিতে বেহায়াপনা ও অশ্লীলতা মুক্ত একটি সুন্দর পরিবেশে বিরাজ করছে। কথিত এ উৎসবের কারনে যাতে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও ঝালকাঠী জেলার জাতি, ধর্ম ,দল-মত নির্বিশেষে সকলের মধ্যে সৌহার্দপূর্ন পরিবেশ বিনষ্ট না করে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে আহবান জানান।
জেলা আদর্শ সমাজ বাস্তবায়ন কমিটির সাধারন সম্পাদক জেলা জাপা সভাপতি এড. আনোয়ার হোসেন আনুর পরিচালনার সভায় জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক জিপি এড. ইউসুফ আলী মোল্লা, জেলা আ’লীগ সহসভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান, জেলা আ’লীগ সাংস্কৃতিক সম্পাদক মনোয়ার হোসেন খান, জেলা আ’লীগ নেতা আঃ মন্নান মুন্সি, জেলা জাপা সাধারন সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান, জেলা শ্রমিকদল নেতা টিপু সুলতান ও আদর্শ সমাজ বাস্তবায়ন কমিটির নেতা হেমিও চিকিৎসক মোসাদ্দেক বিল্লাহ বক্তব্য রাখেন।
উল্লেখ্য ঝালকাঠিতে জন্ম নিয়ে দেশ-বিদেশে সাফল্য অর্জনকারী মা, বোন বা কন্যাদের সমান্বয় আগামী ২৬ ও ২৭ জানুয়ারী আয়োজিত ‘কন্যা উৎসব’ নামে নারীদের পূন:মিলনী বা মিলন মেলা আয়োজন করা হয়েছে। এই মাটিতে জন্ম নেয়া নারীদের শৈশব-কৌশরের মধুমাখা দিনে ধুলো-কাদা মেখে সুগন্ধা-বীষখালী আর ধানসিড়ি নদীতে সাতার কাটা বা নৌকা ভ্রমন আর সহপাটি-বান্ধবীর সাথে গলাগলি বেধে স্কুল ও খেলার মাঠ দাবড়ে বেড়ানো মধূর স্মৃতিবিজড়ি সেইসব দিনগুলোতে ফিরে যাওয়া এক ক্ষুদ্র প্রয়াস হিসাবে ‘কন্যা উৎসব’ নামে ঝালকাঠির মেয়েদের পূন:মিলনের লক্ষ্যে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে আয়োজকরা জানিয়েছে। তাদের এঅনুষ্ঠান বানচাল করার জন্য স্থানীয় এক নারী নেত্রী ও একটি সাংবাদিক সংগঠনের এডভোকেট নেতাসহ তাদের দোসররা এ অনুষ্ঠানে অশ্লীলতা ও বেহায়াপনার অপপ্রচার রটিয়ে মুসলিম ধর্মীয় নেতাদের উস্কানী দিয়ে অনুষ্ঠান বানচালের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানাগেছে।