আমার নেত্রী আমার মাঃরিজভী

আমার নেত্রী আমার মাঃরিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 
আজ মঙ্গলবার বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এ কথা বলেন।রিজভী বলেন, ৮ ফেব্রুয়ারি দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন ও বানোয়াট মামলার রায়কে কেন্দ্র করে এ পর্যন্ত সারা দেশে প্রায় ১ হাজার ২০০ নেতা–কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁর দাবি, অন্যায়ভাবে এই নেতা–কর্মীদের গ্রেপ্তার করে বানোয়াট, ভিত্তিহীন, অসত্য ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা দেওয়া হয়েছে।সংবাদ সম্মেলনে সারা দেশে দলটির নেতা–কর্মীদের গ্রেপ্তারের একটি চিত্র তুলে ধরা হয়। বিএনপির দাবি অনুযায়ী, আজ গ্রেপ্তার হয়েছেন পাবনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মনোয়ার হোসেন শামীম, পাবনা সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রিহানুল ইসলাম এবং পাবনা বেড়া পৌর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মামুন হোসেন। ফেনী জেলাধীন ছাগলনাইয়া পৌর যুবদলের সহসভাপতি মো. আবদুর রৌফ, পৌর বিএনপির সহসাধারণ সম্পাদক আবিদুল হক এবং শুভপুর ইউনিয়ন যুবদলের নেতা আবদুল করিম। সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আরজেদ, জেলা তাঁতি দলের সহসভাপতি নাসির এবং জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক আজিজ।ভোলা জেলার দৌলতখান পৌর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক কমিশনার সিদ্দিকুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র জাকির হোসেন। চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ পাইকপড়া উত্তর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মজুমদার, ফরিদগঞ্জ পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন, পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মোক্তার মিয়াজী, রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আল ইমন সবুজ, গোবিন্দপুর উত্তর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আখের খান, পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক কাউছার হোসেন রুবেল, পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়ন বিএনপি নেতা মাইনুল ইসলাম, বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়ন যুবদলের নেতা রিপন, গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়ন বিএনপি নেতা আবদুল মমিন, সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মানিক হোসেন নান্নু, পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়ন যুবদল নেতা জাকির মোল্লা।নেত্রকোনা কেন্দুয়া উপজেলা বিএনপির সমাজকল্যাণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, শ্রমিক দলের যুগ্ম সম্পাদক আবদুল হালেক, পাইকুরা ইউনিয়ন বিএনপি নেতা আবদুস সালাম, চান মিয়া, আটপাড়া উপজেলা বিএনপির শ্রমবিষয়ক সম্পাদক ইমরুল হাসান, থানা বিএনপি নেতা বজলুর রহমান। মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি রফিকুল ইসলাম, দৌলতপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, দৌলতপুর উপজেলা বিএনপি নেতা বকুল হোসেন, ঘিওর উপজেলা যুবদল নেতা মামুন, হারুনার রশীদ, শহীদুল ইসলাম, মানিকগঞ্জ জেলা যুবদল নেতা রুস্তম উদ্দিন ভূঁইয়া, মানিকগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান, সিংগাইর উপজেলা যুবদল নেতা মামুন এবং সাটুরিয়া উপজেলা ছাত্রদল নেতা সোহাগ। বগুড়া জেলাধীন আদমদীঘি থানা সান্তাহার পৌর বিএনপির সভাপতি ও দুইবারের সাবেক মেয়র কামরুল ইসলাম। সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নুরুলের ছোট ভাই জেলা যুবদল নেতা হাফিজুল ইসলাম এবং বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা যুবদল নেতা নাসির উদ্দিন। নারায়ণগঞ্জ জেলাধীন সোনারগাঁ উপজেলা বিএনপি নেতা ও চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম মান্নানের ছেলে রাসেল, টঙ্গীবাড়ী উপজেলা বিএনপি নেতা আবদুল আলী নান্টু, যুবদল নেতা কামাল হোসেন। জামালপুর জেলাধীন মেলান্দহ উপজেলার ইউনিয়ন বিএনপি নেতা আবুল হোসেন, সানোয়ার হোসেন এবং মাদারগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদল নেতা ফরিদ। সুনামগঞ্জ জেলাধীন সদর উপজেলা বিএনপি নেতা আমিরুল ইসলাম। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাধীন সদর থানা যুবদলের সদস্য সচিব বুলবুল আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া কলেজ ছাত্র সংসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন এবং জেলা বিএনপির সহসম্পাদক আবদুর রৌফ। পাবনা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান। মাদারীপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহান্দার আলী ও সাংগঠনিক সম্পাদক জামিলুর রহমান।