সাভারে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ

সাভারে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ

 মোহাম্মদ আব্দুস সালাম (রুবেল): সাভার পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি কবির হোসেন ফকিরকে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে। শনিবার(১০ই ফেব্রুয়ারি) প্রতিদিনের আলোকে এক সাক্ষাতকারে এ অভিযোগের কথা জানান তিনি। এসময় কবির হোসেন বলেন, গত ২৩ অক্টোবর সাভার মডেল থানার এসআই আলামিন কোনো ওয়ারেন্ট না দেখিয়ে বিনা দোষে তাকে গ্রেফতার করে। এরপর থানায় জেল হাজতে নিয়ে একদিন একরাত নির্মম নির্যাতন চালায়। এরপর ২৫শে অক্টোবর পুলিশ তাকে আদালতে চালান করে দেয়। কবির আরো বলেন, জালেশ্বরের মজিবর রহমান ভূঁইয়া তার বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ আনেন। অভিযোগের এজহারে বলা হয়েছে, ২০ অক্টোবর রাতে কবির(৩০), পরান(২৭), রাশেদ(২০), ইমরান(২৫), রুবেল(২২), আলী(২৪) এই ছয়জন মিলে মজিবরের ভাগ্নে আকাশকে মারধর ও ছুরিকাঘাত করেছে। কিন্তু কবির হোসেন বলেন, ২০ অক্টোবর রাতে তার সাথে আকাশের দেখাই হয়নি। ঘটনা ঘটার তিনদিন পর তিনি এখবর জানতে পারেন বলে জানান। এসময় কবির আরো বলেন, মামলার এজাহারে তার শ্যালক রাশেদকে বিবাদী করা হয়েছে। অথচ রাশেদ দীর্ঘদিন যাবত মালেশিয়াতে আছে। তাহলে সে কিভাবে আকাশকে মারধরের সাথে যুক্ত থাকতে পারে! এটি একটি হয়রানিমূলক মামলা এবং এর দ্বারা তাকে রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে বলেও জানান কবির। কবির এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান এবং যারা আকাশকে মারধর করেছে তাদের দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবী জানান। কবির হোসেন ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমানের দ্বারস্থ হবেন এবং জেলা পুলিশ সুপার বরাবর এধরনের হয়রানির ব্যাপারে একটি দরখাস্ত দিবেন বলেও প্রতিদিনের আলোকে নিশ্চিত করেছেন। এব্যাপারে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(অপরাধ) সাইদুর রহমানকে অবহিত করা হলে তিনি লিখিত অভিযোগ দেয়ার কথা বলেন এবং অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার নিশ্চয়তা দেন তিনি।