চিরিরবন্দরে গাছের ডালে কলসি বেঁধে পাখির ঘর তৈরি

চিরিরবন্দরে গাছের ডালে কলসি বেঁধে পাখির ঘর তৈরি

মো. মিজানুর রহমান (মিজান), চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলায় গাছের ডালে কলসি বেঁধে পাখির থাকার ঘর তৈরি করা হয়েছে।  বন্যাকুলের নিরীহ ছোট প্রাণী পাখিদের বজন্যে একটা নিরাপদ বাসস্থান থাকা প্রয়োজন। তাই পাখিদের জন্য গড়ে তোলা হচ্ছে নিরাপদ অভয়াশ্রম। আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় উপজেলা চত্বরে গাছের ডালে ডালে কলসি বেঁধে পাখিদের অভয়াশ্রম তৈরির এ মহতী উদ্যোগের উদ্বোধন করেন চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. গোলাম রব্বানী। চিরিরবন্দর উপজেলা প্রসাশনের সহযোগিতায় ও সৈয়দপুরের সেচ্ছাসেবী সংগঠন সেতুবন্ধনের একদল তরুন প্রাণের সেচ্ছাশ্রমে উপজেলা চত্বরে ও ভূমি অফিস চত্বরের প্রায় তিন একর জমিতে বড়ক্ষড় গাছের ডালে কলসি বাঁধা হয়েছে। এসব কলসির মধ্যে নিরীহ প্রাণী পাখিরা দিনে ও রাতে বসবাস করতে পারবে। এমন উদ্যোগের বিষয়ে চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. গোলাম রব্বানী জানান, সরকারি ভাবে পাখি শিকার নিষিদ্ধ তার পরও কিছু অসৎ মানুষ পাখি নিধন করে থাকে। উপজেলা পরিষদের ভুমি অফিসের জায়গাটি ছায়া শীতল স্থান হওয়ায় সেখানে অনেক প্রজাতির পাখির আনাগোনা। তাই ওই স্থানটিকে পাখিদের জন্য একটি অভয়াশ্রম করতে চিরিরবন্দর উপজেলা প্রসাশন ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সেতুবন্ধনের সেচ্ছাশ্রম গাছে কলসি বেঁধে বাসস্থান তৈরি করা হয়েছে। তিনি আরোও বলেন, পর্যায়ক্রমে চিরিরবন্দরে আরোও অনেক স্থানেই পাখদের জন্য এমন অভয়াশ্রম তৈরি করা হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন চিরিরবন্দর উপজেলা প্রসাশন, চিরিরবন্দর সকল সাংবাদিকবৃন্দসহ স্থানীয় দু’শতাধিক জনসাধারন।