গুরুদাসপুরে ১৫দিন দাখিলা নেই : জনদুর্ভোগ চরমে

গুরুদাসপুরে ১৫দিন দাখিলা নেই : জনদুর্ভোগ চরমে

গুরুদাসপুর প্রতিনিধি:
নাটোরের গুরুদাসপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস গুলোতে দাখিলা না থাকায় চরম দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছে সাধারন মানুষ। খাজনা দিতে না পারায় সরকারের যেমন রাজস্ব আদায় ব্যহত হচ্ছে। তেমনি জমি রেজিষ্ট্রি থেকে শুরু করে জমির নামজারী, ঋণ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন সাধারন জনসাধারন। মঙ্গলবার উপজেলা ভূমি অফিসে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা জনসাধারনের ভীর। তাদের একই দাবি খাজনা দিতে পারছেন না। ফলে তাদের বিভিন্ন কাজ ব্যহত হচ্ছে। স্থানীয় আব্দুল আজিজ নামে খাজনা দিতে আসা একজন জানান, চিকিৎসার জন্য তিনি ভারতে যাবেন। জমির দাখিলা না থাকার কারনে খাজনা দিতে না পাড়ায় বিক্রি করা জমি রেজিষ্ট্রি করা যাচ্ছেনা বলে টাকাও পাচ্ছেন না। যার কারনে চিকিৎসা জন্য বাহিরে যাওয়া হচ্ছেনা। খাজনা দিতে আসা আক্কাছ আলী জানান, দাখিলা দিতে না পাওয়ায় ব্যাংক কৃষি ঋণ দিচ্ছেনা। ঋণ পেতে দেরী হলে রসুন লাগানো সম্ভব হবেনা। এতে করেও তার অনেক ক্ষতি হবে বলে জানান। বিয়াঘাট ও খুবজীপুর ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইউএলও আব্দুল মমিন জানান, গত ১০ আক্টোবর থেকে দাখিলা না থাকায় খাজনা নিতে পারছেন না। এতে সাধারন মানুষ যেমন ক্ষতিগ্রস্ত্য হচ্ছে তেমনি সরকারের রাজস্ব আদায় ব্যহত হচ্ছে। দীর্ঘদিন দাখিলা না থাকায় বাৎসরিক রাজস্ব আদায়ের টার্গেট পুরণ করা অসম্ভব হয়ে পরবে। যোগাযোগ করা হলে সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোবারক হোসেন জানান, সাপ্লাই না থাকায় দাখিলা সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছেনা। দুই একদিনের মধ্যেই পাওয়া যাবে বলে তিনি জানান।